গায়ে কেরোসিন ঢেলে গৃহবধূর আত্মহত্যা

0
73

নিউজ ডেস্ক: চট্টগ্রামের বোয়ালখালীতে পারিবারিক কলহের জের ধরে গায়ে কেরোসিন ঢেলে আত্মহত্যা করেছেন শারমিন আকতার (২৬) নামে এক ওমান প্রবাসীর স্ত্রী।

চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ৩৬নং বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওই গৃহবধূ শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে মারা যান বলে নিশ্চিত করেছেন পুলিশ ও নিহতের স্বজনরা।

গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার পূর্ব চরণদ্বীপ ৯নং ওয়ার্ডের ঘাটিয়াল পাড়ায় গৃহবধূর শ্বশুর বাড়িতে গায়ে আগুন দেয়ার ঘটনা ঘটে।

এ সময় তাকে বাঁচাতে গিয়ে তার স্বামী মো. সাইফুলও অগ্নিদগ্ধ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি আছেন।

স্থানীয়রা জানায়, ১০ বছর আগে উপজেলার পূর্ব চরণদ্বীপ ৯নং ওয়ার্ডের ঘাটিয়াল পাড়ার আমিনুল ইসলামের ছেলে সাইফুল ইসলামের সঙ্গে চান্দঁগাও মোহরা এলাকার আবুল কাসেমের কন্যা শারমিনের পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়।

বিয়ের পরই সাইফুল জীবিকার সন্ধানে পাড়ি জমান ওমানে। সেখানে অবস্থানকালীন সময়ে সাইফুল জানতে পারেন তার স্ত্রী শারমিন প্রায় সময় মোবাইলে অন্য কারো সঙ্গে কথা বলেন।

এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বেশ কয়েকবার ঝগড়া হয়, এমনকি এ নিয়ে মারধরের ঘটনা ও ঘটে। এক পর্যায়ে শারমিন বাপের বাড়ি চলে যায়। সম্প্রতি তা নিয়ে উভয় পরিবারের বৈঠকের পর শারমিন কয়েকমাস আগে শ্বশুর বাড়িতে ফিরে আসেন। ৩/৪ মাস আগে ওমান থেকে বাড়িতে আসেন সাইফুল। তাদের সংসারে ইসফা নামের ৯ বছর বয়সী একটি কন্যা সন্তান রয়েছে।

চমেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই আলাউদ্দিন তালুকদার বলেন, বৃহস্পতিবার রাত ১২টার সময় দগ্ধ এক দম্পতিকে হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়।

স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া করে স্ত্রী নিজের গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন লাগলে তাকে বাঁচাতে গিয়ে স্বামীও দগ্ধ হয়েছেন বলে জানতে পেরেছি।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মফিজুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, স্বামী স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া লেগেই থাকতো। এ নিয়ে বেশ কয়েকবার সালিশ বিচার ও হয়েছে।

বোয়ালখালী থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. হেলাল উদ্দিন ফারুকী অগ্নিদগ্ধ শারমিনের মৃত্যু নিশ্চিত করে বলেন, স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কলহের জেরে এ ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছি।

তবে এ ঘটনায় এখনও কেউ কোন অভিযোগ করেননি। তারপরও অন্য কোন ঘটনা আছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানান তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here